একুশে পদকপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী মিনু হককে স্বীকৃতি এবং মর্যাদাপূর্ণ সন্মাননা দেওয়ার পাশাপাশি স্বাধীনতার পর থেকে দেশের উন্নয়ন, শৃঙ্খল মুক্তি ও সাফল্যে ভূমিকা রাখায় আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়েছে ৪ নারী। এছাড়া উন্নয়নশীল রাষ্ট্র গঠনে বিভিন্ন খাতে অসামান্য ভূমিকা রাখায় সম্মাননা দেওয়া হয়েছে সফল ৮ নারীকে।

২৮ মার্চ, বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশান ক্লাবে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘উইংসের’ আয়োজনে ‘স্বাধীনতার ৪৭ বছরে বাংলাদেশে নারী’ শীর্ষক পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে দেশের উন্নয়নে অসামান্য ভূমিকা রাখায় এই বিদুষী নারীদের সম্মাননা দেওয়া হয়।

উইংস আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন শিল্পোদ্যোক্তা এবং কেদারপুর টি কোম্পানি লিমিটেডের কর্ণধার লায়লা রহমান কবির, সানবিম স্কুলের অধ্যক্ষ নীলুফার মঞ্জুর, সিডো কমিটির সাবেক চেয়ারপারসন অধ্যাপক সালমা খান এবং সাবেক নারী ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সারওয়ারি রহমান।

আজীবন সম্মাননা ছাড়াও ৮ জনকে উইংস অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্স প্রদান করা হয়। কর্পোরেট লিডারশিপ ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখায় উইংস অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্স ফর কর্পোরেট লিডারশিপে পুরস্কৃত হলেন ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো বাংলাদেশের লিগ্যাল অ্যান্ড অ্যাক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান মুবিনা আসাফ।

কৃষিতে অবদান রাখার জন্যে দ্যা গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ক্লিন কুকস্টোবস, ইউনাইটের ন্যাশনস ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ আসনা তৌফিক, প্রতিবন্ধীদের বাধা দূর করতে অসামান্য অবদান রাখার জন্যে পিএফডিএ ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টারের চেয়ারম্যান সাজিদা রহমান ড্যানিকে উইংস অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্স প্রদান করা হয়।

শিক্ষা ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার জন্যে টিচ ফর বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মায়মুনা আহমেদ এবং চলচ্চিত্র অঙ্গনে ভূমিকা রাখার জন্যে অভিনেত্রী নিপুণকে পুরস্কৃত করা হয়।

শিল্পকলায় ভূমিকা রাখায় কনক চাঁপা চাকমাকে উইংস অ্যাওয়ার্ড অব এক্সিলেন্সে ভূষিত করা হয়। নারী অধিকার এবং আদিবাসী বিষয়ে ভূমিকা রাখায় পুরস্কার পান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম এবং পরিবেশ রক্ষায় অসামান্য ভূমিকা রাখায় বাংলাদেশ এনভায়রমেন্টাল ল’ইয়ার্স এসোসিয়েশনের (বেলা) সৈয়দা রেজওয়ানা হাসান।

সংসদ সদস্য নিলুফার জাফর উল্লাহ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অতিথিদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন। উইংসের প্রেসিডেন্ট তুতলি রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমান।