ছবি: সোনালি সকাল

ডায়েরি লেখা-সেই পুরানো এক অভ্যেস। অনেকদিন আগে আমাদের গুরুজনদের ডায়েরির পাতার লেখাগুলো আমরা আকড়ে ধরে বেঁচে থাকি। ডায়েরির পাতা থেকে অনেক অজানা তথ্য, অনেক জানা-অজানা কথা, ভ্রমণ কাহিনী বের হয়ে আসে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ছোট্ট শিশু অ্যানি ফ্র্যাংকের ডায়েরি থেকে তখনকার যুদ্ধের চিত্র এবং সামাজিক অবস্থা সর্ম্পকে জানা গিয়েছে।
সময়ের সাথে ডায়েরির ধরন পাল্টে গিয়েছে। এখন প্রযুক্তির যুগে কাগজ কলমের সাথে সাথে কি-র্বোড কিংবা নিজের স্মার্ট ফোনেই সবাই লেখালেখি করে থাকেন।
সাধারণত আগে সবাই ডায়েরি লিখতেন লুকিয়ে লুকিয়ে। নিজের মনের অজানা গোপন কথা। কিন্তু গোপন কথা আর রয় না গোপনে … এখন অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেই কথাগুলো ছড়িয়ে দেন। এতে করে আমরা অনেক কিছু সম্পর্কে ধারণা পাই। অনেক কিছু জানতে পারি তাৎক্ষণিকভাবেই। আজ থেকে শুরু হলো সোনালি সকালের নতুন বিভাগ ডায়েরির পাতা থেকে । পাঠকদের অনুরোধ রইলো এই পর্বের জন্য আপনার লেখা পাঠাতে। আপনাদের অভিজ্ঞতা আমাদের মনকে প্রসারিত করবে।
ধন্যবাদ।
নিশাত মাসফিকা