অনেকে রাশিয়া বিশ্বকাপই রোনালদোর শেষ বলে ধরে নিয়েছেন। পর্তুগিজ যুবরাজ যে এরই মধ্যে ৩৩ ছাড়িয়ে ৩৪ বছর বয়সে পা দিয়েছেন। কিন্তু সিআরসেভেন মনে করেন, তিনি এখনো ২৩ বছরে তরুণের মতো। ফুটবলে তার এখনো অনেক কিছু দেওয়ার আছে।

তরুণ একজন ফুটবলার শারীরিকভাবে যতটা ফিট থাকেন তিনি ঠিক ততটাই ফিট। আর এজন্য তিনি ৪১ বছর বয়স পর্যন্ত খেলে যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন। লিভারপুলের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলার আগে রোনালদো এমনই আশা ব্যক্ত করেছেন।

কিয়েভে রোনালদো তার ক্যারিয়ারের পঞ্চম চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা উচিয়ে ধরার লক্ষ্যে পাড়ি দেবেন। এছাড়া রোনালদোদের সামনে সুযোগ আছে একমাত্র ক্লাব হিসেবে পরপর তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জেতার। ওই ম্যাচ সামনে রেখে রোনালদো স্প্যানিশ টেলিভিশনকে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

পর্তুগিজ তারকা বলেন, ‘জৈবিকভাবে এখন আমার বয়স ২৩ বছর। আমার সামনে খেলার জন্য এখনো অনেক সময় বাকি আছে বলে মনে করি। আমার বয়স যখন ৪১ বছর হবে তখনও আমি খেলা চালিয়ে যেতে চাই। আমি কিন্তু বিলাপ করছি না। আমি ভালো অনুভর করছি এবং ভালো আছি।’

রোনালদো ছয় বছর ধরে চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন। চলতি মৌসুমেও তার ১২ ম্যাচে ১৫ গোল হয়ে গেছে। আগামী ২৬ মে রোনালদো চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে লিভারপুলের মুখোমুখি হবে। ওই ম্যাচে গোল পেলেই চারটি চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে গোল করা একমাত্র ফুটবলার হবেন তিনি। তার আগে অবশ্য ডি স্টেফেনো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্লাবস কাপের পাঁচটি ফাইনালে গোল করেন। এছাড়া রোনালদো এসময় নেইমারের রিয়ালে আসার গুঞ্জন নিয়েও কথা বলেন।

পাঁচবার ব্যালন ডি’অর জেতা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো বলেন, ‘আমি রিয়ালে আছি আট বছর হয়ে গেল। এই সময়ে প্রতি বছরই অন্তত ৫০ জন ফুটবলারের নাম শুনি যারা নাকি রিয়ালে যোগ দিতে যাচ্ছে। কিন্তু মৌসুম শেষে তাদের রিয়ালে দেখা যায় না। এই যেমন গতবার আমরা যারা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলেছি তারই আবার মাঠে নামতে যাচ্ছি।’ রোনালদোর কথা থেকেই বোঝা যায় নেইমারের রিয়ালে আসা এখনো গুঞ্জনের মধ্যেই আছে।