রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনের গ্র্যান্ড বলরুমে বেসিস ‘ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৯’ এর আয়োজন করা হয়। এতে কনজ্যুমার মিডিয়া ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে কনটেন্ট ম্যাটার্স লিমিটেডের সিগনেচার ব্র্যান্ড ‘র‌্যাবিটহোল’।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এবং আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সম্মানিত অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন আইসিটি ডিভিশনের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

চ্যাম্পিয়ন হিসেবে র‌্যাবিটহোল পেয়েছে এশিয়ার আইসিটি অস্কার খ্যাত ‘অ্যাপিটকা অ্যাওয়ার্ড ২০১৯’-এ অংশগ্রহণের সুযোগ। আগামী ১৭-২২ নভেম্বর ভিয়েতনামের হা লং বে তে এই মেগা অ্যাওায়ার্ড অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

এই ক্যাটাগরিতে র‌্যাবিটহোল বারো জন প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে দেশশ্রেষ্ঠ’র খেতাব ছিনিয়ে আনে। দেশের শীর্ষস্থানীয় ওটিটি র‌্যাবিটহোল বাংলাদেশের ক্রীড়ামোদীদের জন্য একটি বিশেষ নাম। এই ব্র্যান্ডটির অ্যাপস ডাউনলোড হয়েছে এখন পর্যন্ত ১৫ লাখের কাছাকাছি। অ্যাকটিভ ইউজার আছে প্রায় দশ লাখ। এর ওয়েব ইন্টারফেস www.rabbitholebd.com- এ নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা বিশ লাখ। এখন পর্যন্ত ডাটা সার্ভ হয়েছে চার পেটাবাইটের উপরে। দর্শকরা প্রায় এক কোটি ঘণ্টার কনটেন্ট উপভোগ করেছেন। স্পোর্টসের বাইরে এন্টারটেইনমেন্ট কনটেন্ট সহ সর্বমোট কনটেন্টের সংখ্যা সাড়ে সাতশ’ এবং মোট কনটেন্ট আছে চার হাজার ঘণ্টার। র‌্যাবিটহোলের ইউটিউব চ্যানেলগুলোতে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা প্রায় ৬৫ লাখ। কোনো একক ব্র্যান্ডের অধীনে এতো সাবস্ক্রাইবার বাংলাদেশে আর কারো নেই।

কনটেন্ট ম্যাটার্স এর আগেও ইউনিলিভার আইডিয়া কনটেস্ট ২০১৭-তে শ্রেষ্ঠ এজেন্সি নির্বাচিত হয়। র‌্যাবিটহোল ব্র্যান্ড ফোরামের ডিজিটাল মার্কেটিং সামিট ২০১৮- এর ‘বেস্ট ইউজ অব ইউটিউব’ ক্যাটাগরিতে গ্রাঁ পি অ্যাওয়ার্ড জেতে। এই বছর জিতেছে ‘সিএমও এশিয়া ২০১৯’- এর বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড। এরই ধারাবাহকতায় প্রতিষ্ঠানটি এবার জিতে নিলো ‘বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ড ২০১৯’ এবং সেই সঙ্গে আইসিটি অস্কার খ্যাত ‘অ্যাপিটকা ২০১৯’- এ বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ।